Wed. Sep 28th, 2022

স্বরূপকাঠির সেহাঙ্গলের কানা সেলিমের বেআইনী কর্মকাণ্ডে এলাকার বধুরা নিরাপদ নয় ! তার খুঁটি চোর কোথায়

স্টাফ রিপোর্টার:

কু-চরিত্র, কু-চিন্তা ও  কু- ভাবনা নিয়েই বসবাস সমাজের কিছু কিছু লোকজনের। আবার কেহ কেহ নীতি আদর্শের বদৌলতে সুনাম নিয়ে বেঁচে থাকে সকলের  হ্রদয়ের মন্দিরে। আর সেই আলোকে আমরা বলছিলাম    পিরোজপুর জেলার মধ্যে স্বরূপকাঠির উপজেলা।আর সেই উপজেলার মধ্যে রয়েছে    সমুদয়কঠী ইউনিয়ন।অথচ  অবাক করা কান্ড সমুদয়কাঠী ইউনিয়নের মধ্যে সবচেয়ে আলোচনার কেন্দ্র বৃন্দ সেহাঙ্গল গ্রাম । অতীত ইতিহাসের প্রোফাইলের দিক দিয়ে সেহাঙ্গল এলাকার একটা চমৎকার ঐতিহ্য ছিল । শিক্ষা দিক্ষা সহ রাজনৈতিক ইতিহাস চোখে পড়ার মত। পাকিস্তান আমল থেকে শুরু করে বাংলাদেশ সৃষ্টির সময়েও ছিল দারুণ জৌলুস।  অথচ আজ সময়ের সাথে সাথে কিছু কিছু বিতর্কিত  লোকজনের কারণে অতীত ইতিহাস ডুবতে বসছে।আর এনিয়ে স্থানীয়  রাজনৈতিক বিশ্লেষকরাও দারুণ আশংকা প্রকাশ করেন গণ মাধ্যম কর্মীদের কাছে । গত কয়েক বছর ধরে সেহাঙ্গল এলাকার চলছে হরিলুট সহ অসহিষ্ণু রাজনৈতিক  রামরাজত্ব। আইনের শাসন নেই বর্তমান সময়ে। সত্যের পথে  জোরালো ভূমিকা নেই কাজে কর্মে। নৈতিক অধঃপতনে নিমজ্জিত সেহাঙ্গলের রাজনীতি সহ প্রতিটি কাজকর্ম। চুরি ডাকাতি নিয়ে একটা বদনাম ঘুছতে না ঘুছতে নারীর ইজ্জত নিয়ে   শুরু করে রংতামাশা।  নারীদের ইজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে এলাকার কিছু কিছু বিতর্কিত লোকজন।কলম সৈনিকদের সুনিপুণ লেখনী এবং প্রশাসনের সুদৃষ্টির কারনে চোরা বাবুল এলাকা ছাড়া।অথচ অন্যায়ের বিরুদ্ধে  বলিষ্ঠ নেতৃত্ব দেওয়ার মত স্পষ্ট ভাষী লোকজনের বড়ই অভাব। শাসন করার মত সাদা মনের মানুষ খুঁজে পাওয়া মুশকিল।  অভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে যত্রতত্র ভাবে। এলাকায় একের পর এক বেআইনী কর্মকাণ্ডের জন্য জ্ঞানী গুনিরা দারুণ লজ্জিত হচ্ছে পদে পদে। বাদ যায়নি বিগত সময়ে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ইট চুরি সহ অসামাজিক কার্যকলাপ। বাদ যাচ্ছে না বিদেশে থাকা  একজনের বউয়ের গর্বে বিদেশে থাকা  প্রেমিকের বাচ্চা স্থাপন করে চরম বিতর্কিত উভয়ের পরিবার। বিচিত্র সেলুকাস আর বিচিত্র চিন্তা ভাবনা নিয়ে ঘুরপাক খাচ্ছিলো সেহাঙ্গলের অলিগলি। পাশাপাশি বাদ যাচ্ছে না মাদকের কড়াল গ্রাসের অন্ধকারাচ্ছন্ন ভুতরে পরিবেশ। আর হ্যা৷ সেই ঘটনা নিয়ে  আমরাও সরেজমিনে এলাকায় গিয়ে সঠিক তথ্য উদঘাটন করে সুপ্রিয় পাঠকের জন্য বলছিলাম সেহাঙ্গলের কঠিন বিতর্কিত কানা সেলিমের কথা। মৃত্যু নূর মোহাম্মদ ডিলারের ছেলে গমোঃ সেলিম ( কানা)  এলাকায় একের পর এক বেআইনী কর্মকাণ্ডের সঙ্গে সম্পৃক্ত রয়েছে। স্থানীয় লোকজন বিশেষ খুঁটির জোরে কেউ কিছু বলেন না। বর্তমান সময়ে এক নেতার  বিশেষ আর্শীবাদ পুষ্ট কানা সেলিম। চুরি ডাকাতি সহ নারীদের ইজ্জত নিয়ে ছিনিমিনি খেলায় মেতেছে গত এক বছর ধরে। মাত্রাতিরিক্ত ক্ষমতার অপব্যবহার করে ধরাকে সরা জ্ঞান করে যাচ্ছে সুকৌশলে। আর সেই আলোকে গত পরশু ঝুঁকি পূর্ণ ব্রিজের সংলগ্ন এক বাসার গভীর রাতে বেআইনী কর্মকাণ্ডে লিপ্ত থাকে। এলাকার সুকৌশলী লোকজন মুহুর্তের মধ্যে হাতে নাতে ধরতে সক্ষম হয়। কিন্তু উত্তেজিত জনতা মুহুর্তের মধ্যে গণ পিটুনি দিতে বুল করেনি। এব্যাপারে প্রত্যক্ষ সাক্ষী নাম না প্রকাশের শর্তে গণ মাধ্যম কর্মীদের বলেন ( ছদ্ম নাম উভয়ই) কবিরের স্ত্রী  নাজমার সাথে শারীরিক সম্পর্ক তৈরী করে  রাতের পর রাত বেআইনী ভাবে রাতের ভ্রমর হয়ে সুধা পান করে যাচ্ছে যত্রতত্র ভাবে। প্রতিবাদ করার লোকজনের বড়ই অভাব। কিন্তু কথায় আছে,” পাপ বাপকেও ছাড়ে না ” আর সেই পাপের খেশারাত  দিতে হলো অবশেষে। নাম না প্রকাশের শর্তে এলাকার বহু নারীরা বলেন, কানা সেলিমের কাছে জিম্মি হত দরিদ্র মহিলারা।বিধবা মহিলাদের কাবু করার জন্য বর্তমানে রাজনীতির শক্তি বেছে নেয়। বর্তমানে সময়ের আলোচিত ঐ নেতার খুবই কাছের লোক বিদায় এলাকার মধ্যে রামরাজত্ব কায়েম করতে সুবিধা হয়।এ ব্যাপারে সময়ের আলোচিত ও কঠিন বিতর্কিত কানা সেলিমের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করেন গণ মাধ্যম কর্মীরা। সাংবাদিক পরিচয় পাওয়ার সাথে সাথে মোবাইল ফোন কেটে দেয়। তবে এলাকার বেশির ভাগ বাসিন্দারা গণ মাধ্যম কর্মীদের বলেন কানা সেলিমের কাছে বিবাহিত বধুরা জিম্মি। পাশাপাশি এলাকার মধ্যে যাবতীয় মন্দ কাজের গড ফাদার।সর্বশেষ কথা হয় এলাকার চেয়ারম্যানের সাথে। তিনি কৌশলে অনেক প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে যায়। তবে স্থানয় প্রশাসনের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গণ মাধ্যম কর্মীদের বলেন আমরা বর্তমানে কোন ধরনের অভিযোগ পাইনি। লিখিত আকারে অভিযোগ  পেলে অবশ্যই আইনানুসারে ব্যাবস্থা নিবো। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

উপদেষ্টা মন্ডলীঃমোঃ দেলোয়ার হোসেন খাঁন(হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ,প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান)
ডঃ দিলিপ কুমার দাস চৌঃ ( অ্যাডভোকেট,সুপ্রিম কোর্ট ঢাকা)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতিঃ অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী ।।আইন সম্পাদকঃ অ্যাডভোকেট আবু সালেহ চৌধুরী।।
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: আজির উদ্দিন (সেলিম)
নির্বাহী সম্পাদক: দিলুয়ার হোসেন।। ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোছাঃ হেপি বেগম ।I বার্তা সম্পাদক: মোঃ ছাদিকুর রহমান (তানভীর)
প্রধান কার্যালয় ২/২৫, ইস্টার্ণ প্লাজা,৩য়-তলা ,আম্বরখানা সিলেট-৩১০০।
+8801712-783194 dailyhumanrightsnews24@gmail.com