Wed. Jun 23rd, 2021

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সিলেট-৫ আসনে প্রার্থী হচ্ছেন কারা?

জকিগঞ্জ (সিলেট) প্রতিনিধি:

দেশের উত্তর-পূর্ব কোণে ভারত ঘেঁষা জনপদ জকিগঞ্জ-কানাইঘাট; এ দুই উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসন সিলেট-৫। এ আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য (এমপি) বিরোধী দলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন। দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের ব্যানারে প্রার্থী হয়ে বিনা ভোটে বিজয়ী হন জাতীয় পার্টির এই নেতা।

বিগত দিনে আসনটিকে আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য ছিলেন হাফিজ আহমদ মজুমদার।
২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে আসনটি ছেড়ে দেয় আওয়ামী লীগ। তবে এবার এই আসনটি জাপার দখল থেকে মুক্ত করতে তৎপর রয়েছেন আওয়ামী লীগের ৫ প্রার্থী।

অন্যদিকে, জামায়াতকে কোনো অবস্থায়ই আসনটি ছাড় দিতে নারাজ স্থানীয় বিএনপি। এজন্য দলের মনোনয়ন পেতে তৎপর বিএনপির তিন নেতা।

এছাড়া বর্তমান সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনকে হটিয়ে পার্টির মনোনয়ন পেতে তৎপরতা চালাচ্ছেন জাপার তিন নেতা। তিনজনই পার্টির মনোনয়ন প্রাপ্তির ব্যাপারে আশাবাদী।

এ আসনে আল-ইসলাহ’র কেন্দ্রীয় সভাপতি মাওলানা হুসাম উদ্দিন চৌধুরী ফুলতলী আসনটি চাইতে পারেন আওয়ামীলীগ – জাতীয় পার্টি মহাজোটের কাছে।

আর ২০ দলীয় জোটের পক্ষ থেকে শরিক জামায়াত আবারও আসনটিতে মাওলানা ফরিদ উদ্দিনকে প্রার্থী দিতে জোর তৎপরতা চালাচ্ছে।
এখন দেখার পালা, আসনটি পুনঃরুদ্ধারে বড় দুই দলের প্রার্থী হচ্ছেন কারা? নাকি অতীতের মতো শরিকদের হাতে আসনটি ছেড়ে দেবে আ’লীগ-বিএনপি। জাপা-জামায়াত প্রার্থীরা কেবল সেই সুযোগের অপেক্ষায়।
সব মিলিয়ে একাদশ সংসদ নির্বাচনে বিভিন্ন দলের ১৪ জন সম্ভাব্য প্রার্থী এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। তাদের নিয়ে নেতা-কর্মীরাও দ্বিধাবিভক্ত।
এ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকায় রয়েছেন- জেলা সহ-সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, রূপালী ব্যাংকের চেয়ারম্যান ড. আহমদ আল কবির, সিলেট বিভাগ আইনজীবী পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোস্তাক আহমদ, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা আবদুল মুমিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সদস্য ফয়সাল আহমদ রাজ।
অন্যদিকে সিলেট জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি ও উপজেলা সভাপতি, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চাকসু) ছাত্রদলের সাবেক আপ্যায়ন বিষয়ক সম্পাদক মামুনুর রশিদ মামুন, জেলা বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল কাহির চৌধুরী, সহ-সভাপতি আশিক আহমদ চৌধুরী বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী।
আর জাতীয় পার্টির মনোনয়ন চান- বর্তমান সংসদ সদস্য ও পার্টির চেয়ারম্যানের আন্তর্জাতিক উপদেষ্টা সেলিম উদ্দিন, কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সাব্বির আহমদ, পার্টির কেন্দ্রীয় সদস্য সাইফুদ্দিন খালেদ, কেন্দ্রীয় সদস্য ও জেলা ছাত্রসমাজের সাবেক সভাপতি জাকির হোসাইন।
এ বিষয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ বলেন, ‘৫৩ বছরের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার আমার। পারিবারিক ঐতিহ্যও আওয়ামী লীগের। এলাকায় এ যাবৎ কোনো বদনামের ভাগিদার হইনি। গত নির্বাচনে মনোনয়ন পেলেও জাপাকে আসনটি ছেড়ে দেওয়ায় নেত্রীর সিদ্ধান্তকে সম্মান জানিয়ে প্রার্থী হইনি। কিন্তু কোথাকার সেলিম উদ্দিন বিনাভোটে এমপি হয়ে দুর্নীতি করে মহাজোটের রাজনীতিকে কলুষিত করছেন।’
তিনি বলেন, আমার বাড়ি বিয়ানীবাজার। ওখানের মানুষও তাকে চিনে না, জকিগঞ্জ-কানাইঘাটবাসী ভোট দিবে কেমনে? মনোনয়ন পেলে আসনটি আওয়ামী লীগ সভাপতিকে উপহার দেবো।
মনোনয়ন পাওয়া নিয়ে আশাবাদী অ্যাডভোকেট মোস্তাক আহমদও। তিনি বলেন, ১৯৭৮ সাল থেকে ছাত্রলীগের রাজনীতির সঙ্গে যুক্ত ছিলাম। সে সুবাদে জেলার অনেক নেতা আমার রাজনৈতিক সতীর্থ। তারাও সমর্থন করবেন। আর উপজেলার নেতারা ছাড়াও এলাকার জনগণও প্রার্থী হিসেবে আমাকে চান।
বিএনপির মামুনুর রশিদ মামুন বলেন, প্রার্থী হতে ২০০৬ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছি। উপজেলা, ইউনিয়ন এমনকি ওয়ার্ড পর্যায়ে দলকে সুসংগঠিত করেছি। বিএনপি নির্বাচনে গেলে মনোনয়ন চাইবো। নয়তো প্রার্থী হওয়ার প্রশ্নই আসে না। কেননা, আমি দলের জন্য কমিটেড।
তিনি বলেন, যদি শরিক দলের কাউকে মনোনয়ন দেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে তৃণমূলের সিদ্ধান্তে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েও নির্বাচন করবো। কেননা, এ যাবত নেতাকর্মীরা ৭২ টি মামলায় জর্জড়িত। আরো ‘গায়েবি’ মামলা হচ্ছে। দলের জন্য নেতাকর্মীদের ত্যাগ স্বীকার নির্বাচনের অন্য দলের কাউকে ভোট দেওয়ার জন্য নয়।
সিলেট জেলা বিএনপির সহ সভাপতি আশিক উদ্দিন চৌধুরী বলেন, বিএনপি নির্বাচনে গেলে দলের মনোনয়ন চাইবো। তবে আগে চেয়ারপারসনের মুক্তি চাই।
জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সাব্বির আহমদ বলেন, দশম সংসদ নির্বাচনে পার্টির চেয়ারম্যানের নির্দেশে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েও প্রত্যাহার করি। এবার পার্টির চেয়ারম্যান নিজেই এ আসনে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বলেছেন।
জাপার কেন্দ্রীয় সদস্য সাইফুদ্দিন খালেদ বলেন, পার্টির চেয়ারম্যান বর্তমান সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনকে অন্য আসনে নির্বাচন করতে বলেছেন। এই আসনে আমার নির্বাচন করার নিশ্চয়তা দিয়েছেন।
সূত্র জানায়, দু’টি পৌরসভা ও ১৮ টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত সিলেট-৫ আসনে ভোটার তিন লাখ ৮ হাজার ৬১৬ জন। এর মধ্যে পুরুষ এক লাখ ৫৪ হাজার ৭০৫ এবং এক লাখ ৫৩ হাজার ৯১১ জন নারী ভোটার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

উপদেষ্টা মন্ডলীঃমোঃ দেলোয়ার হোসেন খাঁন(হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ,প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান)
ডঃ দিলিপ কুমার দাস চৌঃ ( অ্যাডভোকেট,সুপ্রিম কোর্ট ঢাকা)
সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতিঃ অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী ।।আইন সম্পাদকঃ অ্যাডভোকেট আবু সালেহ চৌধুরী।।
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: আজির উদ্দিন (সেলিম)
নির্বাহী সম্পাদক: দিলুয়ার হোসেন।। ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোছাঃ হেপি বেগম ।I বার্তা সম্পাদক: মোঃ ছাদিকুর রহমান (তানভীর)
প্রধান কার্যালয় ২/২৫, ইস্টার্ণ প্লাজা,৩য়-তলা ,আম্বরখানা সিলেট-৩১০০।
+8801712-783194 dailyhumanrightsnews24@gmail.com