Fri. Sep 18th, 2020

স্বরূপকাঠিতে স্পীড ব্রেকার, নাকি মানুষ মারার ফাঁদ

সুমন খান স্বরূপকাঠি প্রতিনিধি:

পিরোজপুরের নেছারাবাদ স্বরূপকাঠির উপজেলা রাস্তা গুলোতে যত্রতত্রভাবে গড়ে করে তোলা হয়েছে স্পীড ব্রেকার। সাধারণত দুর্ঘটনা এড়াতে জনবহুল জায়গায় অথবা স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসার সামনে স্পীড ব্রেকার দেয়া হয়। কিন্তু স্বরূপকাঠির নানান রাস্তায় ঘুরে ঘুরে দেখা যায় বিভিন্ন জায়গায় এমনভাবে স্পীড ব্রেকার দেয়া আছে।যাতে দুর্ঘটনা রোধ থেকে দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনাই বেশি। দেখা যায় কারো বাড়ির সামনের রাস্তায় ইচ্ছে হলেই স্পীড ব্রেকার বানিয়ে দিচ্ছেন,আবার চেয়ারম্যান মেম্বররাও অপরিকল্পিত ভাবে গড়ে তুলছেন স্পিড ব্রেকার। সোহাগদল,সুটিয়াকাঠী, নান্দুহার বলদিয়, কুড়িয়ানা জলাবাড়ী ইউনিয়নসহ স্বরূপকাঠি পৌরসভায় ঘুরে দেখা যায় রাস্তায় একটু পর পর স্পীড ব্রেকার। যেগুলোর কোন নির্দিষ্ট মাপে নেই,  যার যেমন ইচ্ছে সেভাবে তৈরি করা হয়েছে, কোথাও উঁচু কোথাও নিচু, কোথাও ঢাল বেশি দিয়ে আবার কোথাও ঢাল কম দিয়ে তৈরি করা হয়েছে গুলো। দুঃখের বিষয় হল  বেশিরভাগই স্পিডব্রেকার গুলি  গ্রাম ও মহল্লার রাস্তাগুলোতে দেখা যায়, অনেক জায়গায় এতটা উঁচু করে তৈরি করা হয়েছে যে  চলার সময় বাইকের, ছোট চাকার গাড়ির ইঞ্জিনে ধাক্কা লেগে প্রায়শই এক্সিডেন্ট এর মত ঘটনা ঘটছে, যার চিহ্ন স্পষ্ট। এগুলোতে না আছে কোন রঙ না আছে নির্দেশনামুলক সাইনবোর্ড।যে কারণে চালকদের চোখে ধরা পরে না। বিশেষ করে অপরিচিত কেউ যখন এই সব রাস্তায় গাড়ি চালান তখন মারাত্মক সমস্যায় পরেন। ভ্যান চালক রহিম বলেন,  যখন ভারী মাই মাল নিয়ে যাই তখনই স্পিডব্রেকার এর ফাঁদে পড়ে ভ্যানের চাকা ভেঙ্গে যায়, এই চাকা সারাতে আয়ের সব টাকা চলে যায়, তাই যত্রতত্র স্পিডব্রেকার গুলো তুলে দিলে মোগো লইগ্গা ভালো হয়। অটোচালক কামাল বলেন, জীবনে বাংলাদেশের অনেক জায়গায় গাড়ি চালাইছি বাই,  কিন্তু এত স্পিডব্রেকার বাংলাদেশের কোথাও দেহি নাই। তাই এটা নিশ্চিত যে,এগুলো যতটা না উপাকারে আসছে তার চেয়ে বেশি মানুষ মারার ফাঁদ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। কবি নজরুল বিএম কলেজের প্রভাষক মাসুম বিল্লাহ বলেন,এগুলো দেখার কেউ নেই, প্রতি নিয়ত বেড়েই চলছে স্পীড ব্রেকার, যদি এখনই এর লাগাম টেনে না ধরা হয় অধূর ভবিষ্যতে স্বরূপকাঠি হয়ে উঠবে স্পীড ব্রেকারের উপজেলা। স্থানীয় এলাকাবাসীরা সরকারের যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে বিশেষ করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার  হস্তক্ষেপ কামনা করছে। এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করে যেখানেই স্পিডব্রেকার প্রয়োজন সেখানে নিয়মমাফিক স্পিডব্রেকার তৈরি করে ও যেখানে প্রয়োজন নাই সেগুলো অপসারণ করে রাস্তাগুলোকে দুর্ঘটনা মুক্ত করবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

উপদেষ্টা মন্ডলীঃমোঃ দেলোয়ার হোসেন খাঁন(হিউম্যান রাইটস ওয়াচ ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ,প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান)
ডঃ দিলিপ কুমার দাস চৌঃ ( অ্যাডভোকেট,সুপ্রিম কোর্ট ঢাকা)
রজত কান্তি চক্রবর্তী সম্পাদক মন্ডলীর সভাপতিঃ অ্যাডভোকেট সাজ্জাদুর রহমান চৌধুরী ।।আইন সম্পাদকঃ অ্যাডভোকেট আবু সালেহ চৌধুরী।।
সম্পাদক ও প্রকাশক: মো: আজির উদ্দিন (সেলিম)
নির্বাহী সম্পাদক: মোস্তাক আহমদ।। ব্যবস্থাপনা সম্পাদক: মোঃ দিলোয়ার হোসেন ।I মহিলা সম্পাদক: মোছাঃ হেপি বেগম ।I বার্তা সম্পাদক: .........................
প্রধান কার্যালয় ২/২৫, ইস্টার্ণ প্লাজা,৩য়-তলা ,আম্বরখানা সিলেট-৩১০০।
+8801712-783194 ... 01304006014 dailyhumanrightsnews24@gmail.com
JS security